সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪
খবর
ফরিদগঞ্জ খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জামাল উদ্দিন এর নামে ব্যাপক অভিযোগ
2024-07-06 12:34:00
স্টাফ রিপোর্টারঃ

ফরিদগঞ্জ উপজেলার খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ জামাল উদ্দিন এর নামে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে , সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় অজানা অনেক তথ্য, চলতি বছরের মার্চে মাসে সে এই অফিসে যোগদান করেন, তারপর থেকে অফিস টি পরিনত হয়েছে  দূর্নীতির আখড়া। বিশেষ করে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এবং মেম্বাররা এই অফিসে বিজিএফ বিজিডি ও ন্যায্য মূল্যের চাল ডেলিভারি নিতে আসলে তার কাছে অনেক হয়রানির স্বীকার হতে হয়,ঘুষ ছাড়া মাল ডেলিভারি দেন না ।চাল ডেলিভারি নিতে আসলে ওজন কম দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী কৃষক রা ধান দিতে আসলে তার কাছে অনেক হয়রানির স্বীকার হতে হয়, সরকার বর্তমানে এ অফিসকে ৯ শত টন ধান ক্রয় করার জন্য সরকার টার্গেট দিয়েছেন, এ পর্যন্ত এই অফিসে ধান ক্রয় করা হয়েছে ৭ শত টন । এই অফিসের গোডাউনের সামনে রাখা বৃষ্টি ভেজা ধান কৃষকদের কাছ থেকে টাকা খেয়ে ক্রয় করে গোডাউনের ভিতর রাখছেন না। তা-ও আবার ৪০ কেজির পরিবর্তে নেওয়া হয়েছে ৪১ কেজি করে।এ অফিসে ধান ঢুকাতে না পেরে ভাড়া ক্লান্ত মন নিয়ে ফেরত চলে গেছে অনেকে। গোবিন্দ পুরের কৃষক রফিকুল ইসলাম ও চান্দার মনু  বলেন । তার মতো  বাজে অফিসার এ অফিসে আর একজন ও আসে নি।সে টাকা ছাড়া কোন কাজ করেন না।এ ব্যাপারে খাদ্য ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জামাল উদ্দিন এর সাথে আলাপ করলে বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা। গোডাউনের সামনে থাকা বৃষ্টি ভেজা ধান গুলো আমরা ফেরত পাঠিয়ে দিবো।এ অফিসের খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা শংকর অধিকারীর সাথে আলাপ করলে বলেন, বিষয় গুলো আমি অবশ্য ই খতিয়ে দেখবো।