শনিবার, ১৫ মে ২০২১
খবর
নারীর আকুতি
2020-10-07 22:46:29
হাজীগঞ্জ প্রতিনিধি :

নারীর আকুতি 

--------------------

■কলমে সায়মা■ 

 

হে পুরূষজাতী , 

লজ্জা কি তুমি পাও ?

কোথায় রেখেছো তোমার লজ্জা ! 

তোমার সভ্য পোশাকের আড়ালে ? 

নাকি তোমার চোখে  ,নাকি তোমার মুখে ?

নাকি তোমার শরীরের কোথাও লুকিয়ে রেখেছো ?

লজ্জা নামক সেই বস্তুটি ! 

নাকি তোমার মনের ভিতর লজ্জা চেপে রেখেছো ।

সুনেছি নারীর নগ্নদেহের প্রতিই নাকি

 তোমাদের কামনা বাসনা জাগ্রত হয় ! 

তবে কি এত দিন ভুল যেনে এসেছি ??

তোমরা শুধু নগ্ন দেহ নয়  ,

 পোশাকে পর্দায় আবৃত নারীর কে দেখা মাত্রই তোমাদের ইচ্ছে শক্তির জাগ্রত হয় ---- 

হে পুরূষ জাতী চিনতে পারছো কি তুমি আমাকে ?

আমি ই সেই নারী যাকে সৃষ্টি কর্তা 

বানিয়েছেন স্বযতনে

সুন্দর দেহ দিয়ে । 

 

যাকে দেখলে তোমাদের কামুক দৃষ্টি লালায়িত হয় ---

যাকে দেখলে তোমাদের যৌন ক্ষুধা বেড়ে যায় ।

যাকে দেখলে তোমাদের স্বুসাদু বারবিকিউ এর মতো 

মনে হয় ।

মনে হয় তোমাদের ভক্ষন কৃত খাদ্যবস্তু আমরা নারীরা ।

একটি বার ও কি ভেবে দেখেছো তোমারা পুরূষরা - 

তোমাদের কামুক দৃষ্টি , তোমাদের হায়নার মতো শিকারী থাবা কতটা যন্ত্রনা দেয় আমাদের ।

আমরা নারী মায়ের জাতী ,অসীম ধৈর্য আর সহনশীল।

 তোমরা কি চিনতে পারো আমাদের মতো নারী কে ---

যার গর্ভে তোমারা পুরূষ জাতী জন্মনিয়েছো --

 

আজ তুমি যাকে তোমার ক্ষুধার ভক্ষন বানিয়েছো ?

যাকে তুমি এই পৃথিবীর বুকে বিবস্ত্র আর বিভৎসতার প্রতিমূর্তি বানিয়েছো----

একদিন তার ঐ গোপন অঙ্গটি দিয়েই তোমরা পৃথিবীর আলো দেখেছো ।।

 

হে পুরূষ জাতি নিজেকে কেন তুমি মনে করো এতটা ই শক্তিশালী ?

তোমার লিঙ্গ আছে বলেই তুমি কেন হও রাক্ষস বেশী শিকারী ! 

কেন তুমি রোজই করো কোন না কোন নারী কে বিবস্ত্র 

তোমার নির্লজ্জ চোখ মুখের লালসায় রোজই কেন হই আমরা ধর্ষিতো।।

আবার কখনো তোমার কল্পনায় কখনো বাস্তবে কেন বার বার হই আমরা বিবস্ত্র ।। 

তোমাদের কাছে কি আছে এর কোন জবাব কোন উত্তর ???

 

হে পুরূষজাতি একটি বারও কি ভেবে দেখেছো তুমি --

তোমার কুৎসিত নোংরা মনের ক্ষুধা মেটাতে তুমি যাকে খুবলে ধরো সেতো হতে পারে তোমারই বোন , মা, স্ত্রী নয়তো কন্যা।।

 

তুমি কতটা হিংস্র আর নির্লজ্জ --- একটি বার ও কি আয়নায় প্রতিবিম্বটা দেখেছো ??

পৃথিবীর বুকে যে হাহাকার  তুমি  রচেছো -- 

তোমার সাময়িক কাম বাসনায় তুমি নিজেকে কতটা বর্বতায় আর ধ্বংসে মেতে উঠেছো -- 

 

আর কত শরীর চাও বলো , আর কতটা ক্ষতবিক্ষত করবে বলো , আর কতটা যন্ত্রনা সইতে হবে বলো ?

কতটা যন্ত্রনা আমরা সইলে তুমি তোমার পাশবিকতায় আমাদের উপর ঝাপিয়ে  পরো ।।

 

আমরা নারীরা তোমার নির্লজ্জ শিকারের মুখে কতটা যন্ত্রনা সইছি --- 

তুমি বুঝবে সেদিন , যেদিন পৃথিবী হবে নিস্তেজ,

তোমার পৃথিবীর চারদিকের অন্ধকারই তোমাকে বোঝাবে --- 

এই নারীরাই ছিলো তোমাদের জগতের আলোর দিশারী।।